উদ্যোক্তার বার্তা


ডিজিটাল বাংলাদেশ এখন আর স্বপ্ন নয় বাস্তবতা। বাংলাদেশ এখন বিশ্বের কাছে এক রুল মডেল। প্রযুক্তিগতভাবে যে মানুষগুলো দক্ষ তারা দেশের জন্য বড় সম্পদ। স্বাধীনতার ৪২ বছর পর বর্তমান সরকারের একটি বড় সিদ্ধান্ত হচ্ছে ২০১৪ সালে দেশের ৩০টি উপজেলায় ৩০টি কমিউনিটি ই সেন্টার স্থাপন করা। আর সাতকানিয়া কমিউনিটি ই সেন্টার হচ্ছে তাদের একটি। সাতকানিয়া কমিউনিটি ই সেন্টার দেশের সকল ই সেন্টারগুলো থেকে আলেদা বৈশিষ্ট ধারণ করে থাকে। সেন্টারটির প্রথমথেকেই অর্থাৎ ২০১৪ সালের জানুয়ারিতে এই সেন্টারের উদ্যোক্তা হিসেবে কাজ শুরু করি। আমার লেখা ২টি বই দিয়েই এই সেন্টারের ট্রেনিং কার্যক্রম পরিচালনা হয়। সাতকানিয়া উপজেলার সকল স্তরের মানুষ ও প্রতিষ্ঠানকে কম সময়ের মধ্যে আইটি সেবা দেয়ার জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছি আমরা। এই সেন্টারে আসার পর থেকে সাতকানিয়ার সকল মানুষকে আইটি সেবা দেয়ার পাশাপাশি দেশের সকল মানুষকে আইটি সেবা দেয়ার জন্য সাতকানিয়া উপজেলা প্রশাসন, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন ও আইসিটি মন্ত্রণালয়ের সহযোগীতায় ৩টি আইটি উদ্ভাবন নিয়ে কাজ করছি। মো: বেলাল হোসেন